Pathikar ranna
Sananda fashion

ভিন্ন স্বাদের চারটি রান্না
ভিন্ন স্বাদের চারটি রান্না। কোনওটিতে লেগে আছে ফরাসী সুবাস, আবার কোনওটি খাঁটি ইতালীয়। কোনওটা আবার আমার-আপনার বেশ চেনা পদ। নানাস্বাদের রান্নার রেসিপি রইল আপনাদের জন্য। পাঠিকা জয়শ্রী মিত্র

g

বাঁশ চিংড়ি সুপার স্পেশাল

উপকরণ: চিংড়ি (মাঝারি সাইজ়ের) ১ কেজি, নারকেল অর্ধেকটা (বাটা), হলুদগুঁড়ো ২৫ গ্রাম, ধনেপাতা ১০০ গ্রাম (বাটা), সরষেবাটা ৫০ গ্রাম, কাজুবাদাম ৪টে (বাটা), আমন্ড ৬টা (বাটা), কাঁচালঙ্কা কয়েকটা, সাদাতেল ১০০ গ্রাম, সরষের তেল ১০০ গ্রাম, নুন-চিনি স্বাদমতো, বাঁশ একহাত লম্বা।

প্রণালী: চিংড়িমাছ ভাল করে ধুয়ে সামান্য নুন-হলুদ মাখিয়ে ভাপিয়ে নিন। প্যানে সরষের তেল ও সাদাতেল দিয়ে সিদ্ধ মাছগুলি দিয়ে দিন। একে একে হলুদগুঁড়ো, ধনেপাতা, সরষেবাটা, কাজু, আমন্ড, নারকেল, নুন, চিনি ও কাঁচালঙ্কা একসঙ্গে দিয়ে মিনিট পাঁচেক নাড়তে থাকুন। বাঁশ ভাল করে ধুয়ে তার ভিতরে পুরো মিশ্রণটি ধীরে ধীরে ঢুকিয়ে দিন। বাঁশের মুখ ফয়েল দিয়ে বন্ধ করে দিন। এবার হালকা আঁচে বাঁশটি গ্রিল করতে থাকুন। প্রায় ৪৫ মিনিট পরে সুগন্ধ বেরলে বাঁশটি নামিয়ে নিন। একটি বড় পাত্রে বাঁশটিকে লম্বালম্বিভাবে রেখে নীচর অংশ ফয়েল দিয়ে ভাল করে মুড়ে দিন। সার্ভিং বোলে বাঁশের উপরের ফয়েলটি খুলে মিশ্রণটি বের করে পরিবেশন করুন। বাসমতী চালের ভাতের সঙ্গে গরম গরম বাঁশ চিংড়ি জমে যাবে।

- – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - -

বাঁশ চিংড়ি সুপার স্পেশাল

উপকরণ: টুনা ফিশ বা ভেটকি মাছ ১ কেজি, আলু ৪০০ গ্রাম, মুরগির ডিম ৪টে, টোম্যাটো সস ৪০ গ্রাম, লেটুস পাতা পরিমাণতো, টোম্যাটো ২টো, পার্সলেপাতা ১ আঁটি, পেঁয়াজ ২৫০ গ্রাম (কুচানো), কাজুবাদামবাটা ১০০ গ্রাম, রসুন ৭-৮ কোয়া, আমন্ড বাটার বা পিনাট বাটার ৫০ গ্রাম, বিস্কুটের গুঁড়ো ১০০ গ্রাম, অ্যারারুট গুঁড়ো সামান্য, কালো আঙুর ৫-৬টা, সাদা তেল ২০০ গ্রাম, নুন-চিনি স্বাদমতো।

প্রণালী: আলু সিদ্ধ করে মেখে নিন। প্যানে তেল গরম করে নুন, চিনি, কাজুবাদামবাটা, পেঁয়াজ, অল্প রসুনবাটা দিয়ে ভাল করে নেড়েচেড়ে নিন। প্যানে ২টো ডিমের ফেটানো সাদা অংশ আর কিছুটা টোম্যাটো সস দিয়ে নাড়তে থাকুন। এতে আলুসিদ্ধ দিয়ে সামান্য অ্যারারুট জলে গুলে মিশিয়ে দিন। পুরো মিশ্রণটি প্যান থেকে ঢেলে আলাদা পাত্রে রাখুন। মাছ হালকা ভাপিয়ে মেখে রাখুন। প্যানে সাদাতেল দিয়ে রসুন ফোড়ন দিন। পেঁয়াজকুচি লালচে গয়ে এলে আলুসিদ্ধ ও ২টো ডিমের ফেটানো কুসুম দিয়ে নাড়াচাড়া করুন। সুগন্ধ বেরলে পার্সলেপাতা, নুন ও চিনি দিন। মাখামাখা হয়ে এলে নামিয়ে নিন। একটি পাত্রে মাখন ও বিস্কুটের গুঁড়ো মাখিয়ে নিন। এর উপরে আলুর মিশ্রণটি রাখুন। মাঝখানে মাছের মিশ্রণটি রেখে পুরো জিনিসটিকে তিন মিনিটের জন্য আভেনে বেক করে নিন। হয়ে গেলে বের করে পরিবেশন করুন। সিদ্ধ ডিমের কুসুম আর কালো আঙুর টুথপিকে গেঁথে উপর থেকে সাজিয়ে দিন। ফিশকেকের চারপাশে লেটুসপাতা ও টোম্যাটো দিয়েও গার্নিশ করতে পারেন।

- – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - -

সুইস ক্যাপসিকাম চিকেন

উপকরণ: বোনলেস চিকেন ১ কেজি, পেঁয়াজ ২৫০ গ্রাম, আদা ১০০ গ্রাম, কাঁচা পেঁপেবাটা ১০০ গ্রাম, ক্যাপসিকাম ৩-৪টে (গ্রেট করে রাখা), গোলমরিচ পরিমাণমতো, টোম্যাটো সস ১০০ গ্রাম, শসা ১টা, রেড বেলপেপার ১টা, ইয়োলো বেলপেপার ১টা, পার্সলেপাতা ১ আঁটি, রসুন ৪-৫ কোয়া, কিশমিশ অল্প, সাদাতেল ১০০ গ্রাম, নুন-চিনি স্বাদমতো।

প্রণালী: চিকেন পেঁপেবাটা, টোম্যাটো, আদাবাটা, গোলমরিচ, নুন, চিনি দিয়ে দু’ ঘণ্টা ম্যারিনেট করতে দিন। পরিমাণমতো জল দিয়ে কুকারে চিকেন সিদ্ধ করে নিন। প্যানে তেল গরম করে তাতে রসুনকোয়া, পেঁয়াজবাটা ও আদাবাটা দিয়ে কষতে থাকুন। রং ধরলে ক্যাপসিকামকুচি দিয়ে দিন। সুগন্ধ বেরলে সিদ্ধ করে রাখা চিকেন, নুন ও চিনি দিয়ে হালকা আঁচে নাড়তে থাকুন। নামানোর আগে লাল ও হলুদ বেলপেপার দিন। পরিবেশন করার সময় কিশমিশ সাজিয়ে দিন। পাত্রের চারপাশে পার্সলেপাতা ও শসার স্লাইস দিয়ে সাজিয়ে দিন।

- – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - – - -

ইটালিয়ান হানি ডিলাইট

উপকরণ: বাসমতী চাল (ব্রাউন) ২০০ গ্রাম, মধু ১০০ গ্রাম, ড্রাই ফ্রুটস ১৫০ গ্রাম, চিনি ১০০ গ্রাম, কর্নফ্লেক্স পরিমাণমতো, কনডেন্সড মিল্ক ৪০০ গ্রাম, গ্রিন আ্যাপল (বা লাল আপেল) ১টা বা পিচ ফল ১টা।

প্রণালী: প্যানে জল গরম করে বাসমতী চাল সিদ্ধ করে নিন। সিদ্ধ হয়ে গেলে পরিমাণমতো মধু মিশিয়ে ভাল করে মেখে নিন। এরমধ্যে ধীরে ধীরে কনডেন্সড মিল্ক মেশাতে থাকুন। পুরো মিশ্রণটিকে একটি পাত্রে নিয়ে উপর থেকে চেপে চেপে দিয়ে আভেনে ঢুকিয়ে দিন। মিনিট পাঁচেক মতো আভেনে বেক করুন। চিনি হালকা আঁচে শুকনো খোলায় বাদামি করে ভেজে নিন। মিশ্রণটি আভেন থেকে বের করে উপর থেকে ভাজা চিনি ও ড্রাই ফ্রুটস ছড়িয়ে দিন। পুরে মিশ্রণটিকে ছুরি দিয়ে কেটে প্রতিটি টুকরোর মাথায় গ্রিন আপেল বা পিচ ফলের টুকরো বসিয়ে পাশে কর্নফ্লেক্স গেঁথে দিন। গরম গরম পরিবেশন করুন।

travel
facebook
facebook